Home

 

সোশ্যাল মিডিয়ার ধোয়াসায় বই নামক বস্তু থেকে আমরা বেশ দূরে সরে গিয়েছি।পাঠ্য বইয়ের বাইরে যেন বই বলতে কিছু বুঝিইনা!!
অথচ এই বইয়ের মাধ্যমেই যুগ যুগান্তের অতীত ইতিহাস আমরা উপলব্ধি করতে পারি,হারিয়ে যাই সালাফদের জীবনে।
পবিত্র কুরআন নাযিলের প্রথম আয়াত ছিলোই,
, ‘পাঠ করো! তোমার প্রতিপালকের নামে, যিনি সৃষ্টি করেছেন। যিনি কলমের সাহায্যে শিক্ষা দিয়েছেন। তিনি মানুষকে শিক্ষা দিয়েছেন, যা সে জানত না।’ (সূরা আল-আলাক, আয়াত-১,৪,৫)…

বিভিন্ন বিষয়ে সুশৃঙ্খল ও পূর্ণাঙ্গ জ্ঞানার্জন এবং পরিপূর্ণ মানসিক প্রশান্তি লাভ করতে হলে অবশ্যই বই পড়া দরকার।কেবল বই পাঠ মানুষের চিত্তকে মুক্তি দেয় এবং মানবাত্মাকে জীবন বোধে বিকশিত করে।
সুস্থ, সুন্দর ও সমৃদ্ধ জাতি গঠনে বই পড়ার কোনো বিকল্প নেই। বই মানুষের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটায়, জ্ঞানের গভীরতা বাড়ায়।
ফেতনার এ যুগে অনলাইনে দ্বীন চর্চা নিশ্চিত ঈমান সন্দিহান করে তোলে।সত্য অন্বেষণে নিজের বিবেক বুদ্ধি দিয়ে ঈমান জোরদার ও আক্বিদা ঠিক রাখা কেবল বই পাঠ দ্বারাই সম্ভব।
সেই লক্ষ্যেই IOM লাইব্রেরির যাত্রা,সবার জন্যই এই লাইব্রেরি উন্মুক্ত।
পাশাপাশি IOM এর একাডেমিক বই,নোট ইত্যাদি প্রয়োজনীয় জিনিস সব এখানে আমরা একসাথে পাবো ইন শা আল্লাহ্।

 

 

 

Content Protection by DMCA.com

কোরআন/হাদিসের বাণী

﴿وَلْتَكُنْ مِنْكُمْ أُمَّةٌ يَدْعُونَ إِلَى الْخَيْرِ وَيَأْمُرُونَ بِالْمَعْرُوفِ وَيَنْهَوْنَ عَنِ الْمُنْكَرِ وَأُولَئِكَ هُمُ الْمُفْلِحُونَ﴾

অর্থাৎ, তোমাদের মধ্যে এমন একটি দল থাকা উচিত, যারা (লোককে) কল্যাণের দিকে আহবান করবে এবং সৎকার্যের নির্দেশ দেবে ও অসৎ কার্য থেকে নিষেধ করবে। আর এ সকল লোকই হবে সফলকাম।

— সূরা আলে ইমরান ১০৪